written by | October 11, 2021

হোয়াটসঅ্যাপ বিপণন

হোয়াটসআপ মার্কেটিং কীহোয়াটসআপ এর সাহায্যে তোমার ব্যবসা কি করে বাড়াবে

এখনকার দিনে আমাদের যাদের কাছে এন্ড্রোয়েড ফোন আছে আমরা হোয়াটসআপ এর সাথে সবাই কম বেশি পরিচিত। আর সেই সংখ্যা টাও ধীরে ধরে বাড়ছে। চ্যাটিং থেকে শুরু করে কোনো ভয়েস ম্যাসেজের মাধ্যমে ইম্পরট্যান্ট কিছু ইনফরমেশন শেয়ার করা, বা দূরে থাকা কোনো বন্ধু, আত্মীয় পরিজন এর সাথে কথা বলা সব কিছুতেই হোয়াটস্যাপ বেশ প্রথম সারিতে। আর দীর্ঘ চার পাঁচ মাস লকডাউন এর জন্যে বাড়িতে আমরা বেশীরভাগই গৃহবন্দী।অনলাইন ক্লাস, মিটিং, অনলাইন বিল মেটানো  এগুলোতে আমরা এখন অনেকটাই অভ্যস্ত। ফলে বাইরে বেরিয়ে দোকান থেকে পছন্দ করে জিনিসপত্র কেনা এখন কিছুটা ভয়ের ব্যাপার এবং চিন্তারও বিষয়। ।অনেক রকম জিনিস দেখে নিজের প্রয়োজন ভালোলাগার জিনিস অর্ডার করা আর বাড়িতে বসে সেগুলো পেয়ে যাওয়া , কে চায় না ? 

ওষুধপত্র থেকে শুরু করে রেগুলার প্রয়োজনীয় জিনিস এখন  ঘরে বসেই  কেনা যায় জাস্ট একটা ক্লিকের মাধ্যমে। আর এখান থেকেই শুরু অনলাইন মাৰ্কেটিং।হোয়াটসআপ এরকমই অ্যাডভান্সড একটা মিডিয়া যেটা তোমার ব্যবসা বাড়ানোর জন্যে তোমাকে একধাপ এগিয়ে দেবে কোনো অতিরিক্ত পয়সা খরচ না করেই।আর এই হোয়াটস্যাপ মার্কেটিং এমন একটা প্লাটফর্ম যেখানে ক্ষতির সম্ভবনা নেই।ভারতবর্ষে বর্তমানে অনলাইন মাৰ্কেটিং একটি অন্যতম বিসনেস কৌশল। প্রচুর মানুষ এই ভাবে তাদের অবসর সময় কাটায় বা কিছু  মানুষ এটাকেই প্রধান জীবিকা করে নিয়েছে। তবে কিছু পদ্ধতি  তোমাকে  এক্ষেত্রে সাহায্য করবে। আর তুমি কিভাবে এই সুবর্ণসুযোগকে কাজে লাগিয়ে নিজেকে একজন সফল ব্যাবসায়ী কিভাবে করে তুলবে সেটাই আজকের আলোচনার বিষয়। 

হোয়াটস্যাপ বিজনেস ইনস্টল

তুমি ভাবছো তোমার যে পার্সোনাল একাউন্ট আছে সেখান থেকেই তোমার ব্যবসা করবে। কিন্তু বাংলায় একটা কথা আছে প্রথমে দর্শনধারী  তারপর গুণবিচারী। তোমার ফোনের হোয়াটস্যাপ ইতিমধ্যেই কিছু গ্রুপ আছে বন্ধুদের নিয়ে বা আত্মীয়স্বজন দের নিয়ে। এবার তুমি যখন সেই একাউন্ট দিয়ে ব্যবসা করবে তোমার কাস্টমাররা জিনিস গুলো দেখে তোমাকে প্রোডাক্ট সম্পর্কে জানতে চাইবে। তোমার পার্সোনাল নম্বর বা একাউন্ট এ  প্রোফাইল পিকচার বা  কিছু জিনিস সব সময়ই পার্সোনাল থাকে। একটা সুস্থভাবে ব্যাবসার জন্য তোমার ব্যাবসায়িক মনোভাব সবার প্রথম তোমার কাস্টমারদের সামনে প্রমান করতে হবে।  সেখানে তোমার পার্সোনাল লাইফ না দেখানোই  শ্রেয় হবে। আর এই সব কিছু ভেবেই হোয়াটসআপ তার দুটো ভার্সন প্রকাশ করেছে। একটা  massanger আর একটা হোয়াটস্যাপ business ।  তুমি হোয়াটস্আপ massangerএর সাথে ভালোভাবে অভ্যস্ত।এবার সময় business app টিকে তোমার লাইফে কাজে লাগানোর। প্রথমে তুমি তোমার ফোনের প্লেস্টোর থেকে সেটা ডাউনলোড করো। আর তুমি যদি apple ফোন ইউসার হও apple স্টোর থেকে আপ টি ডাউনলোড করো। আপ টি হোয়াটস্যাপ massanger এর মতোই দেখতে কিন্তু এখানে একটি ‘বি’ লেখা থাকবে। এই বিজনেস আপ টি দিয়ে তোমার ২টো সুবিধা হবে একটা হলো এই আপা টিতে অনেক বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা পার্সোনাল হোয়াটস্যাপ এ নেই।এগুলো তোমার ব্যবসাকে একধাপ এগিয়ে দেবে। আর তোমার যে আন্তরিক ভাবে ব্যবসা করার মনোভাব সেটাও প্রকাশ পাবে।

কিভাবে তোমার লক্ষ্যে এগোবে?

তবে এক্ষেত্রে তোমাকে একটা ব্যাপার মনে রাখতে হবে। একাউন্ট টি ওপেন করার সময় তোমার পার্সোনাল নম্বর এর পরিবর্তে তোমার প্রোফেশনাল নম্বর টিকে ব্যবহার করতে হবে। যাতে সবাই সেই নম্বর এ তোমাকে যোগাযোগ করতে পারে। 

তারপর সেই একাউন্টএ তোমার পছন্দ মতো একটা প্রফেশনাল ডিসপ্লে এবং কিছু ইনফরমেশন সেট করো। চ্যাট অপসন থেকেই তুমি সেটা করতে পারবে। তবে দেখো এটা যেন তোমার প্রোডাক্ট বা আইটেম এর সাথে ম্যাচ করে।  এগুলো তোমার ব্যবসা কে এগোতে সাহায্য করবে।  

আপা টি massanger এর মতোই দেখতে এতেও তুমি কন্টাক্ট লিস্ট দেখতে পারবে। আর যদি তুমি তোমার বাড়ির ল্যান্ডফোন টিকে অ্যাটাচ করতে চাও সেটাও করতে পারবে। এক্ষেত্রে তুমি যদি ম্যাসেজ গুলো না পাও তোমার কাছে একটা কল আসবে সেখানে একটি ওটিপি পাবে সেটিকে ওই app এর সাথে অ্যাটাচ করতে হবে। 

এই আপটির মাধ্যমে তুমি যখন কোনো ম্যাসেজ সেন্ড করবে সে বুঝতে পারবে এটি কোনো বিসনেস একাউন্ট। তোমার এড্রেস এখানে শো করাতে পারবে যাতে কাস্টমার তোমার বিষয়ে বুঝতে পারে।এখানে তুমি তোমার অফিস আওয়ার্স সেট করতে পারবে সেটা সবথেকে ভালো ফীচার গুলোর মধ্যে একটা অর্থাৎ কোন টাইম থেকে কোন টাইম তুমি এভেইল্যাবেল থাকবে, উইকএন্ড গুলোতে অফ থাকবে কিনা, উইকডেজ গুলোতে কোন টাইম গুলো তুমি কথা বলতে ইন্টারেস্টেড সেটাও লিখতে পারবে। তোমার যদি কোনো পার্সোনাল ওয়েবসাইট থাকে তার লিংক এবং তোমার ইমেইল আইডি দিতে পারবে।

পরবর্তী ধাপ

এখানে লেভেল বলে তুমি একটা অপসন পাবে যেখান থেকে তোমার কন্টাক্ট লিস্ট এবং চ্যাট কে অর্গানাইজ করতে পারবে। এটা এই আপ এর একটা নতুন সংযোজন।  লেভেল প্রকৃতপক্ষে ট্যাগ করে এবং চ্যাট দেখে সেটাকে সুন্দর ভাবে রিপ্রেসেন্ট করে।

পরবর্তী অপসন হলো কুইক রিপ্লাই। যেটি টাইম সেফ করার পাশাপাশি তোমাকে একটা দৃঢ় এবং টাইট  উত্তর দিতে সাহায্য করে। তুমি যখন কিছু প্রোডাক্ট তোমার লিস্ট বা গ্রুপকে শেয়ার করবে কিছু মানুষ তোমাকে রেগুলারলি সেম প্রশ্ন করবে তুমি সেগুলো যদি আগে থেকে সেভ করে রাখো প্রয়োজন মতো সেখান থেকে তাদের একটা ক্লিক করেই সেন্ড করতে পারবে।

কিসের ব্যবসা করবে সেটা আগে ঠিক করো 

প্রথমে সিলেক্ট করো তুমি কোন জিনিস বিক্রি করবে। তোমার কোন বিষয়ে একটা ভালোরকম নলেজ আছে  সেটা তোমাকেই ঠিক করতে হবে। তোমার হোয়াটসআপে কে বা কারা সেই আইটেমটা কিনতে চাইবে তার একটা গ্রুপ তৈরী করো।  তোমার বন্ধু বা আশপাশের সাহাজ্যে তোমার ফোনের কন্টাক্ট লিস্ট বাড়ানোর চেষ্টা করো।  তবে প্রথম দিকে এক্ষেত্রে গ্রুপে অচেনা কাউকে জয়েন না করানোই ভালো। মাঝে মাঝে তোমার গ্রুপের্ মেম্বার দের নিয়ে কনফারেন্স কল বা একটা মিটিং এর ব্যবস্থা করো। যারা তোমার কাছে জিনিস কিনতে আগ্রহী তাদের কাছে পার্সোনালি জানতে চাও তারা কি চায় বা কেমন প্রোডাক্ট তোমার থেকে আশা করে।  প্রোডাক্ট শেয়ার করার সময় তার সাথে তার ডিটেলস গুলো তুমি অ্যাড করতে পারো। যারা ইন্টারেস্টেড হবে তারা সাথে সাথেই সব ব্যাপার গুলো বুঝতে পারবে। আর যখন গ্রুপ ক্রিয়েট করবে তোমার ইন্ট্রোডাকশন, কি ধরণের প্রোডাক্ট শেয়ার করবে সেটার একটা সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেবে। প্রথমেই তোমার প্রোডাক্ট বা কোনো ভূমিকা হীন ইমেজ তোমার প্রভাব কমিয়ে দিতে পারে।

তুমি হোয়াটস্যাপ বিসনেস গ্রুপে কিছু  শেয়ার করার পর কজন তোমার পোস্ট সীন করছে বা কজন সেগুলো পাচ্ছে দেখতে চাও তোমাকে স্ট্যাটিস্টিক্স অপসন টির হেল্প নিতে হবে।  তোমার কাস্টমার দের থেকে সমস্ত প্রোডাক্টিভিটি জানতে সাহায্য করবে এই অপসন টি।  

উপসংহার 

আর চেষ্টায় কি না মেলে? তোমাকে তোমার কাস্টমার দের বিশ্বাসযোগ্যতা প্রমান করতে হবে।  প্রথম দিকে হয়তো সেটা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার কিন্তু আস্তে আস্তে তুমি যখন অভস্ত হয়ে যাবে দেখবে আস্তে আস্তে লাভ হতে শুরু হচ্ছে।  তবে তোমাকে দাম এবং জিনিসের কোয়ালিটি এসব দিকে নজর দিতে হবে।  তবে কোনো প্রোডাক্ট শেয়ার করার জন্যে অফিস আওয়ার্স বা দিনের টাইম তাই বেস্ট। অনেকেই রাতের সময়ে এই পোস্ট পছন্দ করেন না।  প্রথম দিকে গ্রুপ এ বেশি মেম্বার না হলে বা কেউ কেনার জন্যে অর্ডার না দিলে, ইন্টারেস্ট শো না করলেও চিন্তা বা অসহনশীল হয়ে ভেবো না, তুমি পারবে না। কিছু পদ্ধতি তোমার ব্যাক্তিগত এবং একদম ডিফারেন্টলি ভাবতে হবে যেটা তোমাকে সবার থেকে আলাদা করবে এবং  তোমার ধৈর্য্য , সময়ানুসারে লেগে থাকার মানসিকতা তোমাকে সঠিকভাবে এগোতে সাহায্য করবে। 

Related Posts

None

হোয়াটসঅ্যাপ বিপণন


None

জিএসটি এফেক্ট কিরণ স্টোর


None

হাসান নিচ্ সাধারণ দোকানে জন্য কোড


None

মুদি দোকান


None

কিরানার দোকান


None

ফল এবং সবজি দোকান


None

বেকারি ব্যবসা


None

হস্তশিল্প ব্যবসা


None

অটোমোবাইল আনুষাঙ্গিক