written by | October 11, 2021

ক্যাটারিং ব্যবসা

ক্যাটারিং ব্যবসা কীভাবে শুরু করবেন

এখনকার দিনে যে কোনো অনুষ্ঠানেই প্রাধান্য পায় ক্যাটারিং পদ্ধতির সব উপকরণ জোগাড় করা ,রান্না করা থেকে শুরু করে যাবতীয় আয়োজন যারা হাসিমুখে সামলান তাদের কে আমরা এককথায় ক্যাটারিং ব্যবসা বলে থাকি বাড়ির হোক বা পাড়ার কোনো ছোটোখাটো অনুষ্ঠান থেকে বড়ো অরেঞ্জমেন্ট ক্যাটারিং ব্যবসার বাড়বাড়ন্ত সব দিকেই  সাধারণত মাঝারি মানের ব্যবসা বলে এটিকে ধরা হয় যেখানে  ক্ষতির সম্ভাবনা নেই বললেই চলেসারা বিশ্বে লাভজনক ব্যাবসার মধ্যে বর্তমানে অন্যতম ব্যবসা ক্যাটারিং তাই তুমি যদি মনে করো ক্যাটারিং ব্যবসা শুরু করবে এটি তোমার পার্শ্ববর্তী ব্যবসা বা প্রধান ব্যবসা হিসাবে খুব ভালো একটি সিদ্ধান্ত হতে চলেছেতবে খাবারের সাথে যুক্ত বলে রান্না জানতে হবে বা খাবার সার্ভ করা জানতে হবে এমন কথা বাধ্যবাধকতা নেই তবে এই ব্যাবসায় সফল হওয়ার জন্যে সবথেকে বেশি প্রয়োজন কঠোর পরিশ্রম করার মানসিকতাপ্রথমে তুমি যদি বড়ো পরিসরে শুরু করতে না পারো ছোট আকারেও শুরু করতে পারো  আর শুরু করার জন্যে কি কি ধাপে তোমাকে এগোতে হবে সেটাই আজকে আমাদের আলোচনার বিষয়  

  • সারা পৃথিবীতে খাবারের তারতম্যের সীমাপরিসীমা নেই তাই সবার আগে তুমি কোন খাবার বা কোন ধরণের খাবারের ব্যবসা করতে চাও সেগুলো ঠিক করো যখন কোনো খাবারের সাথে আবেগ   ভালোবাসা মেশে তখনই সেটা একটি পরিপূর্ণ খাবার হয়ে ওঠে যে সেটি একটি সুস্বাদু এবং  যে খাবার গুলোর উপর তোমার প্যাশন, আগ্রহ সেই খাবার গুলো প্রথমে সিলেক্ট করোতুমি প্রথমেই যদি মেন্ ফুড অর্থাৎ ভাত , ডাল , মাছ , বিভিন্ন রকমের তরকারি দিয়ে ব্যবসা শুরু করতে চাও তাহলে তোমাকে এটা আগে ভাবতে হবে যেখানে বেশি লোকের জন্যে খাবার প্রস্তুত করতে হবে তুমি পারবে কিনাআর এর জন্যে স্কুল, কলেজ গুলোতে তুমি যোগাযোগ করতে পারোএখনকার দিনে বিরিয়ানী, ফ্রাইড রাইস ,চিকেনের বিভিন্ন আইটেম বেশিরভাগ লোকেই পছন্দ করেতুমি যদি এই সব মুখরোচক জিনিসের প্রিপারেশন আয়োজন করতে পারো তাহলে বিভিন্ন বিবাহ বা অন্যান্য অনুষ্ঠানে ক্যাটারিং করতে পারো
  • সাধারণত বাড়িতে রান্না করার জন্যে যে জায়গার দরকার হয়, কোনো ক্যাটারিং এর রান্না করার জন্যে তার থেকে বেশি জায়গার দরকার হবে তাই ক্যাটারিং এর ব্যবসা শুরু করার জন্যে তোমাকে একটু বড়ো রান্নার জায়গা, বিভিন্ন জিনিস পরিষ্কার করার জায়গার ব্যবস্থা করতে হবে তার জন্যে তুমি কোনো ঘর ভাড়া করতে পারো আর যদি পুঁজি না থাকে তাহলে নিজের বাড়ি থেকে রান্না করেই তা সরবরাহ করার ব্যবস্থা করতে পারো খাবার প্রস্তুত এবং সেটাকে সুষ্ঠু ভাবে  সরবরাহ করাই যে কোনো ক্যাটারিং এর আসল কাজ সঠিক দামে সুস্বাদু খাবার পরিবেশন করতে পারলেই ধীরে ধীরে তোমার ব্যবসা উন্নত হবে
  • যেহেতু ক্যাটারিং ব্যবসা বাড়ি থেকে সম্ভব তাই জায়গা খোঁজার দরকার হবে না, তবে রান্না করার বা অর্ডার কৃত খাবার কাস্টমারের বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার জন্যে বাসনপত্রের প্রয়োজন হবে  সেগুলো তোমাকে আগে থেকেই আয়োজন করে রাখতে হবে খাবার প্যাকেট জাত করার দরকার হলে তার দ্রব্যাদি এছাড়াও থালা , প্লেট , কাপগ্লাস  এসব ডিস্পোজাল আইটেমগুলিরও কালেকশন রাখা দরকার  অনেক কাষ্টমারই  খাবার এর সাথে এগুলো পেলে খুশি হন  
  • নাম ছাড়া সবকিছুই অচেনাকথায় বলে নাম দিয়ে যায় চেনাতাই তোমার ক্যাটারিংয়ের ব্যবসা শুরু করার আগে একটা মনমতো নাম পছন্দ করো মাৰ্কেটিং বা অনলাইন বিজ্ঞাপন সব ক্ষেত্রেই এই ব্যাবসার নাম সাহায্য করে আর যেহেতু সব ব্যাবসায়িক ক্ষেত্রেই কম্পেটিশন তোমার মৌলিকত্বকে সবার সামনে প্রুভ করার ক্ষেত্রেও তোমার ব্যাবসার নাম সহায়তা করবেএকই জায়গায় যদি দুটো ক্যাটারিংয়ের ব্যবসা চলে তাহলে কোনটা তোমার ,আর কোনটা তোমার নয় নতুন একজনের পক্ষে সম্ভব নয় তাই ব্যাবসার সাথে  রিলেটেড কোনো নাম দিয়ে পদবি ঠিক করো যেটা ফুড রেজিস্ট্রেশন পেতেও সাহায্য করবে  
  • পরবর্তী স্তরে তুমি যে আইটেমগুলো প্রিপায়ার করবে ভেবেছো সেগুলোর উপযুক্ত দাম ঠিক করো তার জন্যে দরকার হলে শুরু থেকে কোনো খাবার তৈরির জন্যে কত খরচ হবে সেটা কাউন্ট করে তার উপর কিছু লাভ রেখে দাম ঠিক করলে ভালো হবে যেহেতু একই দামে বিভিন্ন জায়গা থেকে খাবার পাওয়া যায় , তাই শুরুর সময় খাবারের দাম সকলের নাগালের মধ্যে আনতে হবে, আস্তে আস্তে লোকজন তোমার ব্যাপারে জেনে গেলে খাবারের দাম একটু বাড়াতে পারো প্রতিটি খবরের একটি বাস্তব সম্মত দাম যেমন সব মানুষের তোমার খাবারের ওপর আগ্রহ বাড়াবে তেমনি কাস্টমারের সংখ্যাও বাড়বে, তোমার উপর বিশ্বাসও বাড়াবে তবে দিনের শেষে কত খরচ হলো আর তোমার কত লাভ হলো সেটা নোট করতে ভুলো  না যেন
  • তোমার ব্যবসা শুরু করার পর তোমার কিছু বন্ধু বান্ধব, কাছাকাছি কিছু আত্মীয় স্বজন কে নিমন্ত্রণ করতে পারো, কোনো পার্টি অরেঞ্জ করতে পারো তোমার তৈরী খাবার তারা কেমন ভাবে গ্রহণ করছে, তাদের কাছ থেকে তুমি সাজেশন নিতে পারো আইটেম গুলোর স্বাদ, কোয়ালিটি বা কোনো চেঞ্জেস এর ব্যাপারে তোমার ব্যাবসার পথে যদি স্বাদের কোনো সমস্যা থাকে সেগুলো ধীরে ধীরে সরে যাবে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে খাবার সরবরাহ করেও আয় করতে পারো  
  • খাবার সরবরাহ করা থেকে শুরু করে রান্না করা, অন্যান্য কাজ পরিচালনা করা বা কোনো অযাচিত অবস্থার সমাধান করা সব কাজ একজনের পক্ষে সম্পন্ন করা অনেকসময়ই একটু মুশকিলের হয়ে পরে তাই আগে থেকেই একজন সহকারীর সাহায্য নিতে পারো  তবে সে যেন বিস্বস্ত হয় এই ব্যাপারে সতর্ক হতে হবে সে একটু অভিজ্ঞ হলে তোমার যে কোনো ডিসিশন নিতে সে তোমাকে সহায়তা করতে পারে। 
  • এরপর তোমাকে মাৰ্কেটিং এর দিকে নজর দিতে হবে অনলাইন সোশ্যাল সাইটগুলি তো আছেই, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম এখন সব রকম অ্যাড দেয়ার জন্যে একটি পারফেক্ট জায়গা হয়ে দাঁড়িয়েছেস্থানীয় পত্রিকাতেও কোনো বিজ্ঞাপন দিতে পারো তবে সেখানে  কোনো অফার দিতে পারো মানুষদের আকর্ষণ করার জন্যেঅবশ্যই লিফটলেট বিলি করতে পারো সবার কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্যেপ্রথম দিকে একটু কম লাভ রেখে কয়েকটা বাড়িতে খাবার ডেলিভারি করতে পারলে সহজে তোমার পপুলারিটি বেড়ে যাবে বিভিন্ন ওয়েবসাইটের সাহায্য নিতে পারো তোমার ব্যাবসার প্রচার করার জন্যে, তোমার বাড়ির কাছে যে স্কুল,অফিস গুলি আছে রোজকার খাবার সরবরাহ করার জন্যে যোগাযেগ করতে পারো যেহেতু বাড়িতে বসেই এই ব্যবসা পরিচালনা করা সম্ভব তাই নারী পুরুষ সকলের পক্ষেই এই ব্যবসা করা বেশ লাভজনক
  • কতজন লোকের জন্যে কতটা পরিমান খাবার উপকরণ ,জিনিস লাগতে পারে তার একটু প্ল্যান করে রাখতে পারো যদি তোমার এই আইডিয়া গুলো না থাকে তবে ইন্টারনেট থেকে তথ্য জোগাড় করলে তোমার ব্যাবসায়িক দিকগুলো বুঝতে সুবিধা হবে সাধারণ ভাবে এই ব্যবসা শুরু করার জন্যে হাজার টাকা থেকে হাজার টাকার প্রয়োজন হয়তবে তুমি কোন আন্দাজে শুরু করতে চাও টাকার পরিমান তার ওপর নির্ভর করবে আর যেহেতু এটি খাবার বিসনেস তাই একবারে বাজার করা সম্ভব নয় তাই রোজকার অর্ডার অনুযায়ী বাজার করার মেন্টালিটি থাকতে হবে  ব্যক্তিগত পূঁজির জোগাড় করতে সমস্যা হলে  মূলধন সংগ্রহের জন্য নিকট আত্মীয়স্বজন, ঋণদানকারী ব্যাংক বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান (এনজিও) –এর সাথে যোগাযোগ করা যেতে পারে কিছু কিছু সরকারি, বেসরকারি ব্যাংক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও শর্ত সাপেক্ষে ঋণ দিয়ে থাকে

আশা করি এই ধারণাগুলি তোমাকে ব্যবসা শুরু করার জন্যে সাহস এবং আত্মবিশ্বাস যোগাবে  তবে আর ভয় কিসের নতুন উদ্দমে তোমার ব্যবসার আয়োজন শুরু করে দাও

 

Related Posts

None

হোয়াটসঅ্যাপ বিপণন


None

জিএসটি এফেক্ট কিরণ স্টোর


None

হাসান নিচ্ সাধারণ দোকানে জন্য কোড


None

মুদি দোকান


None

কিরানার দোকান


None

ফল এবং সবজি দোকান


None

বেকারি ব্যবসা


None

হস্তশিল্প ব্যবসা


None

অটোমোবাইল আনুষাঙ্গিক